সূর্যমুখী বীজ

0
1582

সূর্যমুখী বীজ

সূর্যমুখী বীজ খেতে খুব সুস্বাদু ও নরম প্রকৃতির। এই সূর্যমুখী বীজ ভিটামিন বি ফলেটের দারুণ একটি উৎস যা গর্ভবতী মহিলা ও বিশেষ করে হার্টের রোগীর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই বীজে আছে ভিটামিন ই সমৃদ্ধ একটি শক্তিশালী এন্টিঅক্সিডেন্ট। তাছাড়া  এতে রয়েছে ক্যান্সার ও ইনফ্লেমেটোরি প্রতিরোধী উপাদান।

আউন্স (২৮ গ্রাম) সূর্যমুখী বীজে বিদ্যমান উপাদানসমূহঃ

  1. ক্যালরিঃ ১৬৪
  2. ফাইবারঃ ২.৪ গ্রাম
  3. প্রোটিনঃ ৫.৮ গ্রাম
  4. মনো আনস্যাচুরেটেড ফ্যাটঃ ৫.২ গ্রাম
  5. ওমেগা-৬ ফ্যাটঃ ৬.৪ গ্রাম
  6. ভিটামিন ইঃ ৪৭% (দৈনিক চাহিদার তুলনায়)
  7. ম্যাঙ্গানিজঃ ২৭% (দৈনিক চাহিদার তুলনায়)
  8. ম্যাগনেসিয়ামঃ ২৩% (দৈনিক চাহিদার তুলনায়)

সূর্যমুখী বীজের স্বাস্থ্যকর উপকারী দিকসমূহঃ

  • কিছু গবেষণায় দেখা গেছে যে, সপ্তাহে পাঁচবারের বেশি সূর্যমুখী বীজ খেলে সি-রিএ্যাকটিভ প্রোটিন লেভেল কমিয়ে দেয় যেটি প্রদাহজনিত রাসায়নিক ক্রিয়ার সাথে জড়িত প্রধান উপাদান হিসেবে কাজ করে।সূর্যমুখী বীজ প্রদাহের হ্রাস করে। এই বীজ মধ্যবয়সী মানুষের জন্য খুবই ভাল কাজ করে।
  • সূর্যমুখী বীজে উচ্চমাত্রায় মনোস্যাচুরেটেড ও ওমেগা-৬ ফ্যাট উভয়েই বিদ্যমান যা কোলেস্টেরল কমাতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।
  • একটি পর্যবেক্ষণীয় গবেষণায় বলা হয়েছে যে, মহিলাদের প্রতি তিন সপ্তাহের স্বাস্থ্যকর খাদ্য তালিকাতে কমপক্ষে ৩০ গ্রাম সূর্যমুখী বীজ রাখা উচিত।কেননা এটি রক্তের ট্রাইগ্লিসারাইড,কোলেস্টেরল এবং LDL কোলেস্টেরল হ্রাস করে।
  • গর্ভবতী মহিলা ও বিশেষ করে হার্টের রোগীর জন্য সূর্যমুখী বীজ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।
  • এটি আপনার মনকে চাঙ্গা করে তুলতে পারে। এছাড়া মানব দেহের Alzheimer’s, ডেমেনেশিয়া ও বাইপোলার ব্যাধির ঝুঁকি কমাতে সূর্যমুখী বীজের জুড়ি নেই।
  • সূর্যমুখী বীজ মনকে শান্ত রাখে এবং চাপ কমায় বলে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য খুব ভাল খাবার বলে মনে করা হয়।

সূর্যমুখী বীজ কিভাবে খাবেনঃ

  • সূর্যমুখী বীজ কাঁচা খাওয়া যায় কারণ কাঁচা খেতে বেশ সুস্বাদু। এছাড়া এটি আপনি ভেজেও খেতে পারেন।
  • এটি সালাদ ও মিষ্টি জাতীয় খাবারেও ব্যবহার করা যায়।
Facebook Comments